কোনো পাকিস্তান এয়ার ফোর্সের হুমকি ভারতীয় এয়ার ফোর্সকে কিছুটা চিন্তায় রাখে। Why Pak Air Force Threat Kept To Think Indian Air force.

কোনো পাকিস্তান এয়ার ফোর্সের হুমকি ভারতীয় এয়ার ফোর্সকে কিছুটা চিন্তায় রাখে। Why Pak Air Force Threat Kept To Think Indian Air force.
Credit:airfighters.com

কোনো পাকিস্তান এয়ার ফোর্সের হুমকি ভারতীয় এয়ার ফোর্সকে কিছুটা চিন্তায় রাখে। Why Pak Air Force Threat Kept To Think Indian Air force.


পাকিস্তান সব সময় চেষ্টা করে তাদের বায়ু সেনার মধ্যে কোয়ালিটি মেইনটেইন করার এবং তাদের ফর্ম বা গঠন থাকে ৩:১ অনুপাত একটি ভারতীয় ফাইটার জেট বা প্লেন কে নামানোর জন্য এবং একই চেষ্টা করেছিলো ১৯৬৫ যুদ্ধেও যেটা Thomas M.Leonardo ২০০৬ তার লেখা Encyclopedia Of Developing World নামক একটি বইয়ের মধ্যে প্রকাশ করে গেছেন। 



আমরা জানি ভারতীয় বায়ু সেনা পৃথিবীর চতুর্থ সব থেকে বড়ো বায়ু সেনা যেখান আমাদের Mirage, Rafal, Sukhoi 30-Mki এর মতো মডার্ন এয়ারক্যাফট  থাকালেও কিন্তু আমরা এই রেস থেকে অনেকটা পিছিয়ে আমি জানি আপনারা আমরা সঙ্গে একমত না হলেও এটাই বাস্তব চলুন একটু উদাহরণঃ স্বরূপ জেনেনি সাধারণ পাবলিকের না জানা কিছু কথা বালাকোট স্ট্রাইকের থেকে। 



আপনারা জানেন বালাকোট স্ট্রাইকের ঠিক পরেই পাকিস্থান অন্য একটি রিভেঞ্জ অপরেশন সফল করতে চেয়ে ছিলো কিন্তু যেটা সফল না হলেও তাদের প্রাইমারি টার্গেট ছিলো ইন্ডিয়ান ব্রিগেড হেড-কোয়াটার ও শ্রীনগর অয়েল ডিপোর্ট এবং সেইদিন ওই অফেন্সিভ মোডে পাকিস্তান কোন রকমের ফাইটার প্লেন ব্যবহার করছিলো তাও আমরা জানবো। 


প্রথমে পাকিস্তানের পক্ষ থেকে উত্তর দিকে 4টি JF-17 থান্ডার মুজাফরাবাদ থেকে শ্রীনরের দিকে আসছিলো সঙ্গে 4টি MIRAGE-III/V একই সঙ্গে আসছিলো ব্যাকআপ দেবার জন্য, ঠিক একই ভাবে পুঞ্চ সেক্টরের দিকে 4টি F16 এর একটি স্ট্রাইক প্যাকেজ এগিয়ে আসছিলো এবং ব্যাকআপ দেবার জন্য সঙ্গে 4টি JF-17 থান্ডার তাদের লক্ষ করছিলো এবং আরও 4টি MIRAGE-V এই দুটি প্যাকেজকে সাপোর্ট করছিলো একই ভাবে এই ফরমেশনের দক্ষিণ দিকে 4টি F16 আসছিলো এবং আরো দক্ষিণে 4টি MIRAGE-III/V একটি প্যাকেজ আসছিলো যেখান দেখা যাচ্ছে সর্ব মোট 28টি ফাইটার প্লেন পাকিস্থানের পক্ষ থেকে উড়ানো হয় এবং যেটাকে লিড বা পথ দেখাচ্ছিলো একটি SAAB AWACS পেছন থেকে এবং একটি DA-20 FALCON বিমান তাদের সাহায্য করছিলো ভারতীয় ফাইটার প্লেনের সিগন্যাল আটকানোর বা জ্যাম করার। 

  1. 4 X JF-17 THUNDER.
  2. 4 X MIRAGE-III/V.
  3. 4 X F16.
  4. 4 X JF-17 THUNDER.
  5. 4 X MIRAGE-V.
  6. 4 X F16.
  7. 4 X MIRAGE-III/V.
  8. 1 X SAAB AWACS.
  9. 1 X DA-20.

কোনো পাকিস্তান এয়ার ফোর্সের হুমকি ভারতীয় এয়ার ফোর্সকে কিছুটা চিন্তায় রাখে। Why Pak Air Force Threat Kept To Think Indian Air force.
Credit: AlphaDefence.




এবার দেখা যাক ভারতীয় ফরমেশন বা প্যাকেজ গুলিকে এবং কিভাবে এরা পাকিস্থানী ফাইটার প্লেন গুলিকে  ভারতীয় সীমানাতে না ঢোকার জন্য আটকাতে চেষ্টা করছিলো এবং কোন এখানে ভারতীয় এয়ার ফোর্স এখানে কিছুটা চিন্তায় রাখে।


ভারতীয় 2টি MIRAGE-2000 উত্তর দিকে অর্থাৎ শ্রীনগরের দিকে রক্ষা করছিলো একই ভাবে দক্ষিণ দিকে 2টি SUKHOI-30 MKI রাজৌরির কাছে ভারতীয় স্থল সেনার ব্রিগেড হেড কোয়াটারকে রক্ষা করছিলো।


এখনো ভারতের হেভি ওয়েট এয়ার সুপিরিয়রিটি ফাইটার রাখার কারণ ভারতীয় বায়ু সেনা জানতো পাকিস্তানের প্রাইম টার্গেট হতে চলেছে এই রাজৌরির কাছে ভারতীয় স্থল সেনার ব্রিগেড হেড কোয়াটারটি তাই কোনো ভাবে শত্রুর ফাইটার প্লেনকে এটার আসে পাশে আস্তে দেওয়া উচিত হবে না কারণ এটা যেমন পাকিস্তানের জন্য হাই ভ্যালু টার্গেট তেমনি ভারতের কাছে মোস্ট সেনসিটিভ হেডকোয়াটার। 

একই ভাবে ভারতের পক্ষ থেকে 2টি MIG-21 রুটিন ফ্লাইট করছিলো যাতে কোনো পাকিস্তানি প্লেন ভারতীয় সীমানায় ঢুকে না পড়ে বলপূর্বক এবং সেই সঙ্গে 2টি MIG-21 এয়ার বেসের অপেক্ষা করছিলো ব্যাকআপ কল না আসা পর্যন্ত। 


  1. 2 X MIRAGE-2000.
  2. 2 X SUKHOI-30 MKI.
  3. 2 X MIG-21.
  4. 2 X MIG-21.


কোনো পাকিস্তান এয়ার ফোর্সের হুমকি ভারতীয় এয়ার ফোর্সকে কিছুটা চিন্তায় রাখে। Why Pak Air Force Threat Kept To Think Indian Air force.
Credit: AlphaDefence.

8টি F16,  4টি JF-17 সঙ্গে  8টি MIRAGE-III/V এম্বুশ ও স্ট্রাইকের জন্য ভারতীয় সুখোই গুলির দিকে এগিয়ে আসছিলো তাছাড়াও সেদিন  F16 অনেকগুলি AIM-১২০ মিসাইল ছুড়েছিলো কিন্তু আমরা জানি সেদিন কোনো ভারতীয় SUKHOI-30 MKI ফাইটার প্লেন শুট ডাউন করা হয়নি।


কিন্তু ভারতের SUKHOI-30 MKI গুলি হঠাৎ করে কানেকশন,কমিউনিসেশন বা কথা-বার্তা ভারতীয় AWACS প্লেনের সঙ্গে বিচ্ছিন্ন হয়ে যায় পাকিস্থানের DA-২০ FALCON রাডার জ্যামিং বা EW [ELECTRONIC WARFARE] প্লেনের জন্য যেটার কারণ ভারতীয় পাইলট অভিনন্দন বর্তমান সঙ্গে আরো তিনটি MIG-21 পাকিস্তানের মধ্যে অনেক ভিতর পর্যন্ত চলেযায়।  


তাছাড়াও,SAAB ERIEYE AWACS গুলি খুবই দক্ষতার সঙ্গে পাকিস্তানের স্ট্রাইক প্লেন গুলির সঙ্গে কার্ডিনেশন করেছিলেন প্রতিটি লোকেশন জানানোর জন্য। 


তাহলে আমরা বলতে পারি পাকিস্তানের কোনো ফাইটার প্লেন যেমন F16, JF-17 বা MIRAGE-III/V কোনো প্রকার হুমকি না পরিবর্তে তাদের AWACS এবং EW [ELECTRONIC WARFARE] প্লেন গুলি সত্যিকার অর্থেই একটি থ্রেট যেটা ভারতীয় বায়ু সেনাকে  কিছুটা চিন্তায় রাখে।



EWA [ELECTRONIC WARFARE AIRCRAFT ]

পোস্ট বালাকোট এয়ার স্ট্রাইকের সময় পাকিস্তানের এই প্লেনটি একটি গুরুত্বপূর্ণ রোল প্লে করেছিল এবং যদিও পাকিস্থানের কৌশল সফল না হলেও সেইদিন পাকিস্তান এয়ার ফোর্স কিছুটা সফলতা লাভ করা ভারতীয় এয়ার ফোর্সের কমিউনিকেশন জ্যাম করার মাধ্যমে। 

পাকিস্থান ফ্রান্সের ফ্যালকন DA-২০ বিসনেস জেট গুলিকে ওয়ারফেয়ার স্যুটের মাধ্যমে একরকমের জ্যামারে রোলে রূপান্তরিত করে সেই সঙ্গে এগুলিতে [ECM] ELECTRONIC COUNTER MEASURE যেগুলি পাকিস্তানের এয়ার ফোর্সের জন্য খুব উপযুক্ত প্লাটফ্রম। 

কিভাবে কাজ করে এই ডিভাইস যখন একটি প্লাটফ্রম যেমন SUKHOI-30 MKI আরো একটি SUKHOI-30 MKI সঙ্গে কমিউনিকেশন করতে চায় তাহলে এই প্লেনের রোল হয়ে থাকে এই কমিউনিকেশন আড়ি পেতে শোনা এবং শত্রুর কৌশল জেনে নেয়া বা ভাইটাল সময়ে এই কমিউনিকেশন সিগন্যাল ডিফেলেক্ট করা জ্যাম করে দেওয়া। 

ভারত কোনো রকমের এই ধরণের ডেডিকেটেড প্লাটফ্রম ব্যবহার করেনা এবং যদি প্রয়োজন হয় তাহলে হেভিয়ার প্লাটফ্রমের উপর নির্ভর করতে হয় যেটা ফাইটার প্লেনের অস্ত্রের রেঞ্জ কমানোর জন্য যথেষ্ট তাহলো ভারতের নতুন রাফালের উপর এটা খুব বেশি প্রভাব দেখাতে পারবেনা কারণ এটার একটি পাওয়ারফুল SPECTRA নামক জ্যামার স্যুট ইনস্টল করা আছে। 

কিন্তু এটার একটি পার্মানেন্ট সমাধান হচ্ছে অনেক বেশি করে SDR পাওয়ারফুল সফ্টওয়ার ডিফাইন্ড রেডিও যুক্ত করা IAF ফ্লিটের মধ্যে যেটা সেফ কমুনিকেশন করতে সাহায্য করে এবং সহজে জ্যাম করে দেওয়া না যায়। 

কোনো পাকিস্তান এয়ার ফোর্সের হুমকি ভারতীয় এয়ার ফোর্সকে কিছুটা চিন্তায় রাখে। Why Pak Air Force Threat Kept To Think Indian Air force.
Credit:commons.wikimedia.org



AWACS [সর্বদা আকাশের দিকে চোখ]

এই একটি জায়গা যেখান PAF অনেক এগিয়ে না হলেও ভারতের জায়গা ঠিকই একই জায়গায়, এই প্লাটফ্রমের কাজ সর্বদা আকাশের,স্থল ও জলের দিকে লক্ষ রাখা এবং অগ্রিম অনেক দূর থেকে আসা তিনটি জায়গার সমস্ত এরিয়াল এবং লং রেঞ্জ টার্গেট সনাক্ত করে গ্রাউন্ড কন্ট্রোল সেন্টারকে ইনফর্ম করা আগে থেকে অ্যাকশন নেবার জন্য। 

বর্তমানে ভারত জায়গায় ২ টি DRDO তৈরি NETRA AWACS [নেত্র] যেটা ব্রাজিলের তৈরি EMBRAER-১৪৫ জেটের উপর ইনস্টল করা এবং যেটার রেঞ্জ ২৫০ কিলোমিটার ও ২৪০ ডিগ্রি কভারেজ দিতে সক্ষম ঠিক একই ভাবে তিনটি ইসরালী PHALCON AWACS যেটার রেঞ্জ ৪০০ কিলোমিটার ও ৩৬০ ডিগ্রি কভারেজ দিতে সক্ষম রাশিয়ার তৈরি IL-৭৬ ট্রান্সপোর্ট প্লেনের উপর ইনস্টল করা আছে। 

কোনো পাকিস্তান এয়ার ফোর্সের হুমকি ভারতীয় এয়ার ফোর্সকে কিছুটা চিন্তায় রাখে। Why Pak Air Force Threat Kept To Think Indian Air force.
PHALCON AWACS.
Credit:en.wikipedia.org

কোনো পাকিস্তান এয়ার ফোর্সের হুমকি ভারতীয় এয়ার ফোর্সকে কিছুটা চিন্তায় রাখে। Why Pak Air Force Threat Kept To Think Indian Air force.
NETRA AWACS.
Credit:en.wikipedia.org




পাকিস্তান সুইডেনের SAAB গুরুপের দ্বারা তৈরি DRDO মতো ঠিক একই ৪ টি প্লাটফ্রম ব্যবহার করে যেটার রেঞ্জ ৪২৫ থেকে ৪৫০ কিলোমিটার এবং চিনের তৈরি SHANXI ZDK যেটা Y-৮ ট্রান্সপোর্ট প্লেনের উপর ইন্স্টল্ করা আছে এবং এটা ৩টি ইউনিট ব্যবহার করে। 



যে কাজ গুলি করণীয় ভারতীয় বায়ু সেনার জন্য :

  • খুব বেশি মাত্রায় SDR বা SOFTWARE DEFINED RADIO এবং DATALINK যুক্ত করা উচিত ইউনিভার্সাল সেফ কথা বলার জন্য। 
  • আরো বেশিমাত্রায় AWACS যুক্ত করতে হবে ভবিষ্যতের TWO-FRONT অর্থাৎ [চীন ও পাকিস্তান] যুদ্ধের জন্য। 
  • আরো বেশি করে ডেডিকেটেড SEAD [SUPPRESSION OF ENEMY AIR DEFENSE SYSTEM] এবং DEAD [DESTRUCTION OF ENEMY AIR DEFENSE] যুক্ত করতে হবে যার ফলে ভারতীয় বায়ু সেনার মনোবল ও মিশন দুই সফলতার রেট বুস্ট করে। 

কোনো পাকিস্তান এয়ার ফোর্সের হুমকি ভারতীয় এয়ার ফোর্সকে কিছুটা চিন্তায় রাখে। Why Pak Air Force Threat Kept To Think Indian Air force.
Credit:en.wikipedia.org

SEAD
এবং  DEAD ব্যাবহারিক একটি ভাবে মিলিটারি অপরেশনের মধ্যে পরে যেখান সেনা চেষ্টা করে ফিজিক্যালি ও ইলেট্রিক্যালি সারফেস টু এয়ার মিসাইল, আর্লি ওয়ার্নিং রাডার সিস্টেম, কমান্ড ও কন্ট্রোল সেন্টার ধ্বংস করে দেয়, কিছু দিন আগেই ভারত একটি নতুন NGARM [NEW GENERATION ANTI-RADAR MISSILE]  তাদের ফ্লিটে যুক্ত করেছে। 


Post a Comment

0 Comments