কূটনীতি কি ? [All About Diplomacy]


কূটনীতি কি ? [All About Diplomacy]
ক্রেডিটঃ https://www.debatingeurope.eu

কূটনীতি কি ? [All About Diplomacy] 

যুদ্ধ কখনোই শান্তি বা উন্নতি বহন করতে পারেনা এবং যুদ্ধ নিশ্চিত ভাবে মানের জন্য দুঃখ বহন করে আনে মানুষের নজরও কাড়ে পাশাপাশি মানুষের জীবনে একটা তীব্র প্রভাব বিস্তার করে, কিন্তু Diplomacy বা কূটনীতি খুব মানুষের নজর কাড়ে কিন্তু মডার্ন দুনিয়ায় এটাই একমাত্র সমাধান যুদ্ধের। 



কূটনীতির জন্মহয় ১৮০০ সালের সময় যখন মিলিটারি কৌশলী Carl von Clausewitz দ্বারা যখন তিনি যুদ্ধ এড়াতে চাইছিলেন একইভাবে এটার প্রভাব যুদ্ধের থেকেও বেশি করাযায় সেটা থেকেই Diplomacy বা কূটনীতি খেলা শুরু হয় কিন্তু বর্তমানে এটা ইন্টারন্যাশনাল রাজনীতি হিসাবে মানাহয় তিনি এটাও জানিয়ে ছিলেন একটি যুদ্ধ শুধু একটি রাষ্টের ইচ্ছা বা লক্ষ পুরুন করতে পারে যেটা একটি সাধারণ অ্যাকশন Diplomacy ব্যাবহার করে সম্পূর্ণ করাযায় এবং এটার খরচ কম যুদ্ধের থেকে। 


রো পড়ুন :কেনো পাকিস্তান ভারতের সঙ্গে হঠাৎ শান্তি চায় ?

আজকের দিনের diplomacy বা কূটনীতি শুধু মাত্র একটি বা দুটি দেশের মধ্যে সীমাবদ্ধ নয় এটা একটি বা দেশের সাধারণ সম্পর্ক নির্ধারণ করা দেয় আন্তর্জাতিক রাজনীতিতে পাশাপাশি এটা বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান ব্যবহার করে থাকে যেমন EU [ইউরোপিও ইউনিয়ন] বা UN [ইউনাইটেড নেশন ]



কূটনীতি কি ? [All About Diplomacy] 

যখন থেকে মানব জাতির আবির্ভাব ঘটে তখন থেকে ডিপ্লোমেসি বা কূটনীতি অস্তিত্ব ছিলো, এটাকে জানতে বা বুজতে গেলে আগে আপনাকে দেখতে হবে এটা একটি নরমাল সিস্টেম একটি পথ দুটি বা তিনটি কথোপ কথনের।


ডিপ্লোমেসি বা কূটনীতি একটি দেশের রাষ্ট্র প্রধান বজায় রাখেন তার দেশের রাষ্ট্রদূতকে অন্য রাষ্ট্রে পাঠিয়ে সেটা সম্মান রক্ষা বা কোনো খবর পৌঁছনোর মাধ্যমে। 


কিন্তু এখনতাসব অতীত আগের তুলনায় এখন এগুলির মধ্যে কিছু মর্ডার্ন পন্থা যোগ করা হয়েছে যেমন EMBASSIES, INTERNATIONAL LOW, PASSPORT,VISA, পেশাদার ডিপ্লোম্যাট ইত্যাদি। 


এটাকে আন্তর্জাতিক রাজনীতির মধ্যে ধরাহয়না কিন্তু এগুলি বিভিন্ন ভাবে পৃথিবীর শান্তি রক্ষাতে গুরুতূপূর্ণ ভূমিকা পালন করেন। 


বর্তমানে কূটনীতি একটি মাত্র মাধ্যম দুটি দেশের যুদ্ধ এড়ানোর পাশাপাশি দেশের বাবসা-বাণিজ্য,সংস্কৃতি, জ্ঞান, সম্পদ বাড়ানোর একটি ভালো উপায়। 


Post a Comment

0 Comments